শ্রীপুর উপজেলার হালুকাইদ এলাকায় মাদকসেবন কারীর হাতে এসএসসি পরীক্ষার্থী খুন

Top News এক্সক্লুসিভ ঢাকা বিভাগ প্রধান খবর শিরোনাম সারাদেশ

শেখ রমজান হাসান নূর

নিজস্ব প্রতিবেদক:
যায়যায় সময়.কম

গাজীপুরে পূর্বশত্রুতার জেরে এসএসসি পরীক্ষার্থী খুন হওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

সোমবার রাত ১১ টার দিকে শ্রীপুর উপজেলার হালুকাইদ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত শাহীন মিয়া (১৬) ধলিপাড়া এলাকার সোহাগ মিয়ার ছেলে।

নিহত শাহীন মিয়া নানার বাড়ী থেকে পাবুরিয়াচালা পাবুরিয়াচালা উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়াশোনা করতো।

নিহতের নানা হায়দার আলী জানান, শাহিন গতরাতে তার বন্ধুদের সাথে পার্শ্ববর্তী গ্রাম হালুকাইদ একটি মসজিদে ওয়াজ মাহফিলে যায়।

সেখান থেকে রাত ১১টার সময় বাসায় ফেরার পথে পূর্ব শত্রুতার জেরে মাদকসেবন কারী স্থানীয় শামসুল হকের ছেলে সজিবসহ কয়েকজন মিলে শাহিনের পথরোধ করে। পরে তারা শাহীনকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে পালিয়ে যায়।
এসময় শাহীনের সাথে থাকা অপর এক বন্ধু চান্দুমিয়ার ছেলে মোকাররম( ১৮) কে ও ছুরিকাঘাত করা হয়।
আহত মোকাররম বর্তমানে মুমূর্ষ অবস্থায় শহীদ তাজউদ্দিন আহম্মেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী আবু কালাম উরফে কালু মিয়ার সন্তান পারভেছ যায়যায় সময় কে জানান,ওয়াজ মাহফিল শেষে আমি বাড়ি যাচ্ছিলাম গুটগুটে অন্ধকার তখন
নতুন বাজার হিমেলের দোকানের সামনে আসতেই দেখি কিছু পোলাপান দৌড়ে যাচ্ছে শাহিন মিয়া পেটে হাত ধরে দাঁড়িয়ে আছে।আমি শাহিন কে কিছু জিজ্ঞেস করার আগেই শাহিন উপুর হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে।আমি তাত্ক্ষণিকভাবে তাকে ধরে দেখি তার সাড়া শরীরে রক্ত ঝড়ছে।আমি সিএনজি ও অটো ডাকতে থাকি কেউ আমাকে সাড়া দিচ্ছে না। সবাই দেখে চলে যাচ্ছে। হঠাৎ পাভুরিয়াচালার এক অটো দিয়ে শাহিন তুলে নিয়ে হসপিটালে যাওয়ার রওনা হচ্ছি। পথি মধ্যে শাহিন দীর্ঘশ্বাস নিয়ে অজ্ঞান হয়ে যায়।আমরা শাহিনের নানাকে ফোন দেই তার নানার আসতে দেরি দেখে আমি ও আমার বন্ধু সাজ্জাদকে নিয়ে প্রথম রাজেন্দ্রপুর জেনারেল হসপিটাল, তারপর মর্ডান হসপিটাল নিয়ে যাই।মর্ডান হসপিটাল কতৃপক্ষ আমাদের গাজীপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে যেতে বল্লে, আমরা সিএনজি করে গাজীপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করি। হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক বলে,শাহিন আধা ঘন্টা আগে মারা গেছে।
যায়যায় সময়ের সাথে একান্ত সাক্ষাতকারে পারভেছ আরো বলেন,শাহিনের সাথে দীর্ঘ সময় চলেছি শাহিন খুব ভাল ছাত্রছিল আমরা শাহিনের মূল হত্যাকারির বিচার চাই।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ব্যাক্তি যায়যায় সময়কে বলেন, শাহিনের সাথে তারই স্কুলের এক মেয়ের সাথে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। সম্ভবত সজিব ও মেয়েটিকে ভালবাসতো তারই জের ধরে এই ঘটনার সূত্রপাত হতে পারে বলে ধারণা করছি।
আর সজিবের উঠাবসা স্থানীয় কিছু মাদক ব্যবসায়ী ছদ্মনাম ডিজে,ছোক্কাসহ মাদক সেবনকারি অনেকের সাথেই তার উঠাবসা ছিল।সে নিজেও মাদক সেবন করতো।এলাকার ভিতরে যেন মাদকের আকড়া হয়ে গেছে।উঠতি বয়সি তরুণরা মাদকের এই বয়াল থাবায় নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। আমরা প্রশাসনের কাছে জোর দাবী জানাই এই নির্মম হত্যাকান্ডের সঠিক তদন্ত সাপেক্ষে বিচার দাবি করছি ও এলাকা থেকে মাদকে আকড়া গুলো ভেঙে দিয়ে মাদকমুক্ত করার দাবি জানাচ্ছি।

শ্রীপুর থানার ওসি খন্দকার ইমাম হোসেন জানান, সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। মৃতদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন আছে।