বিমান দুর্ঘটনায় নেপালে নিহত প্রিয়কের প্রিয় গাড়ীটি আগুনেপুরে ছাই-আবারো প্রাণে বেঁচে গেলেন মেহেদী[ যায়যায় সময় ] 

শিরোনাম সারাদেশ

টি.আই সানি

গাজীপুর প্রতিনিধি:              

যায়যায় সময়.কম

বিমান দুর্ঘটনায় নেপালে নিহত প্রিয়কের প্রিয় গাড়ীটি আগুনেপুরে ছাই-আবারো প্রাণে বেঁচে গেলেন মেহেদী।

গাজীপুরের পোড়াবাড়ী-মাস্টারবাড়ি এলাকায় নেপালে বিমান দূর্ঘটনায় নিহত মো. ফারুক হোসেন প্রিয়কের প্রিয় প্রাইভেট কারটি ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে শনিবার সকালে হঠাৎ করে আগুন ধরে পুড়ে গেছে। পরে জয়দেবপুর ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ও হাইওয়ে পুলিশ গিয়ে আগুন নেভান। আগুনে গাড়ি পুড়ে গেলেও কেউ দ্বগ্ধ হয়নি। এ ঘটনায় ওই পথে সাময়িক যানজটের সৃষ্টি হয়।

নাওজোর হাইওয়ে ফাঁড়ির এসআই প্রদীপ কুমার মজুমদার জানান, প্রিয়কের মামাতো ভাই মেহেদী হাসান মাসুম শ্রীপুর উপজেলার জৈনাবাজার এলাকা থেকে কারটি চালিয়ে ঢাকার দিকে যাচ্ছিলেন। পথে রাজেন্দ্রপুর এলাকায় পৌঁছালে হঠাৎ করেই গাড়ি থেকে ধুঁয়া বের হতে দেখে মাস্টার বাড়ি এলাকায় একটি ওয়ার্কশপের সামনে নিয়ে কারটি দাঁড় করায়। এর কিছুক্ষণ পরেই কারটিতে আগুন জ্বলতে থাকে। খবর পেয়ে জয়দেবপুর ফায়ার সার্ভিসের দুইটি ইউনিটের কর্মীরা আগুন নেভান। এ সময় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে (ঢাকার দিকে) যানচলাচল সামিয়ক বিঘœ ঘটে এবং গাড়ির দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়।

প্রিয়কের চাচাতো ভাই মো. লুৎফর রহমান জানান, কারটি প্রিয়কের খুব প্রিয় ছিল। প্রিয়কের মামাতো ভাই মাসুম কারটির ত্রæটি সারাতে এবং কাগজ নবায়ন করতে শনিবার সকালে কারটি নিয়ে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছিল। পরে পথে কারটি আগুনে পুড়ে যাওয়ার খবর পেয়েছি। মাসুম এ বছরের ১২মার্চ নেপালে বিমান দূর্ঘটনায় প্রিয়কের সঙ্গেই বিমানের যাত্রী ছিলেন মেহেদী হাসান মাসুম এবং আহত ও হয়েছিলেন। আজ আগুনে কারটি পুড়ে গেলেও মেহেদী হাসান মাসুম অল্পের জন্য অক্ষত অবস্থায় প্রাণে বেঁচে গেছেন।

জয়দেবপুর ফায়ার স্টেশনের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মো. জাকির হোসেন বলেন, যান্ত্রিক ত্রটি থেকে কারে আগুনের সূত্রপাত হয়েছিল বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। জয়দেবপুর ফায়ার স্টেশনের দুইটি ইউনিটের কর্মীরা প্রায় ২০মিনিটের চেষ্টায় আগুন নেভানো হয়। তবে এতে কেউ আহত হননি।

…………………………………………………………………………………………….

 সবার আগে সর্বশেষ সংবাদ পেতে এখনই যায়যায় সময়.কম এর পেইজে লাইক দিয়ে যায়যায় সময় এর সাথেই থাকুন।
যায়যায় সময় এ কবিতা,ছড়া,গল্প, ও বিজ্ঞাপন প্রকাশ করতে চাইলে আমাদের ইমেইল করতে পারেন।
অথবা লগইন:- করুন www.jaijaisomoy.com
Facebook Loging করুন ……ফেইসবুকে বাংলায় লিখুন:- যায়যায় সময়.কম
 Twitter..a…. Loging করুন …..JaiJai Somoy
 Google+….a..Loging করুন …..JaiJai Somoy
লাইক, কমেন্ট, শেয়ার করুন।
এগিয়ে যাব সত্যের সাথে যায়যায় সময়.কম।