গাজীপুরে মনিপুরে কাঁচা বাজার ভাংচুর, লুটপাটের অভিযোগ ২৫ ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী নিঃস্ব

Top News

শেখ রমজান হাসান নূর

নিজস্ব প্রতিবেদক:

যায়যায় সনয়.কম   

গাজীপুর সদর উপজেলার বোকরান মনিপুর বাজার এলাকায় কমপক্ষে ২৫টি ক্ষুদ্র ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রাতের আঁধারে কাঁচা বাজারে লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার দিবাগত রাত আনুমানিক সাড়ে তিনটার দিকে শাহজাহান বিন আলমের মার্কেটে এ ঘটনা ঘটে।

ওই ঘটনায় মার্কেট মালিক শাহজাহান বিন আলম বাদি হয়ে স্থানীয় মো. মহসীন আলম, মো. বাবুল হোসেন সিকদার, মোস্তফা কামাল ভুঁইয়া, জুয়েল আহমেদ, নিয়ন খান ও বাপ্পিকে অভিযুক্ত করে জয়দেবপুর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগে জানা গেছে, গত ৪০ বছর যাবত মনিপুর বাজারে মনিপুর মৌজায় ২৬ শতক জমি ক্রয় করে সীমানা প্রাচীর নির্মাণসহ ২৫টি স্থাপনা নির্মাণ করে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের কাছে চুক্তিনামার মাধ্যমে ভাড়া দিয়ে ভোগ দখল করে আসছেন।

অভিযুক্তরা শাহজাহান বিন আলমের তত্বাবধায়ক রবিউল ইসলামকে ওই সম্পত্তি ও স্থাপনায় তদারকি না করতে দীর্ঘদিন যাবত হুমকি ধামকি দিয়ে আসছে। পরে অভিযুক্তরা ওই সম্পত্তিতে একাধিকবার অনধিকার প্রবেশের চেষ্টা করে।

এ বিষয়ে ২০১৩সালে শাহজাহান বিন আলম বাদি হয়ে আদালতে একটি মামলা দায়ের করলে আদালতও তাদের পক্ষে ভোগদখলের রায় দেন। আদালতের রায় অমান্য করে ২৬ সেপ্টেম্বর শনিবার রাতে অভিযুক্তরা লাঠিসোটাসহ কমপক্ষে ২৫ জন উচ্ছৃংখল যুবক মার্কেটের কাঁচা বাজের দোকান-পাটসহ সকল প্রকার স্থাপনা ভাংচুর ও মালামাল লুটপাট করে নিয়ে যায়। এসময় দোকানসমূহের মালামালসহ কমপক্ষে ১০ লাখ টাকার ক্ষতিসাধন করে।

এ ব্যাপারে মার্কেটের ক্ষুদ্র মাছ ব্যবসায়ী দেলোয়ার হোসেন জানান, তার দোকানের ড্রামভর্তি ২৫ হাজার টাকার মাছ, ব্যবসায়ী আব্দুর রাজ্জাকের কমপক্ষে ৩০ হাজার টাকার মাছ, চা’য়ের দোকানী সুমনের ১৫ হাজার টাকার মালামালসহ মোট ২৫ ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীর মালামাল তছনছ, লুটপাটও ক্ষতিসাধন করে। ওই মার্কেটের সকল ব্যবসায়ী এখন নিঃস্ব হয়ে পড়েছে।

ঘটনার ব্যাপারে অভিযুক্ত মহসীন আলম অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, তারা স্থাপনা ভাংচুর বা লুটপাটের সাথে জড়িত নহে।
জয়দেবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. জাবেদুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, এ ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। একজন উপ পরিদর্শককে বিষয়টি তদন্ত করে দেখার জন্য দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।